আইপিএলক্রিকেটখেলাধুলা

বিধ্বংসী শিখরে জিতলো হায়দ্রাবাদ

ক্রিকেটের ভাষায় একটি কথা আছে "ক্যাচ মিস মানে ম্যাচ মিস"। হয়তো এদিন সেটাই হলো।

দু বছর পরে আইপিএলে ফিরে এসে মোটেই সুখকর অভিজ্ঞতা হলো না রাজস্থান রয়্যালসের। আইপিএলের প্রথম ম্যাচেই সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের সাথে গোহারান হেরে গেল রাজস্থান রয়্যালস। অন্যদিকে রশিদরা ক্রিকেটের নতুন নক্ষত্র হয়ে গেলেন।


শুরুতেই হায়দ্রাবাদের বোলিং এর সামনে কুপকাত রাজস্থান। আই পি এলে অধিনায়ক হিসাবে রাজস্থানের ইনিংস চার মেরে শুরু করলেও তা এগাতে পারেন নি অধিনায়ক অজিঙ্ক রাহানে।সত্যি বলতে গেলে আজ হায়দ্রাবাদের বোলাররা রাজস্থানের ব্যাটসম্যানদের সুযোগই দেয়নি।ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন আই পি এলের সবচেয়ে দামী প্লেয়ার বেন স্টোকসও।রাজস্থানের হয়ে একমাত্র সফল হয়েছেন সঞ্জু স্যামশন।সঞ্জুর ঝুলিতে গেছে ৪১ বলে ৪৯ রান।আর বাকি ব্যাটসম্যানরা বলতে গেলে সবাই কুপকাত।


.
রাজস্থানের সংগ্রহ ২০ ওভারে ১২৫ রান।হায়দ্রাবাদের হয়ে ২টি করে উইকেট নিয়েছেন সিদ্ধার্থ কল,সাকিব।একটি করে উইকেট নিয়েছেন ভুবি,রাশিদ ও বিলি স্টানলেক।

দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই জয়দেব উনাদকটের বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান ঋদ্ধিমান সাহা। কিন্তু এর আগে প্রথম ওভারেই শিখর ধাওয়ানের ক্যাচ মিস স্লিপে দাড়ানো অজিঙ্কা রাহানে। ক্রিকেটের ভাষায় একটি কথা আছে “ক্যাচ মিস মানে ম্যাচ মিস”। হয়তো এদিন সেটাই হলো।


এর পরেই বিধ্বংসী মেজাজে ব্যাট করতে শুরু করেন শিখর ধাওয়ান। একের পর এক বল গিয়ে আছড়ে পরতে থাকে গ্যালারি বাউন্ডারি লাইনে। তখন কোনো বোলারই টিকতে পারলেন না তার সামনে। তখন স্টেডিয়াম জুরে শুধুই শিখর বন্দনা। সেই সাথে যোগ্য সঙ্গত দেন অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। শেষমেশ ৭৭ রানের একটি ঝোড়ো ইনিংস খেলে থামেন। সেই সাথে তিনি আইপিএলে প্রথম অরেঞ্জ ক্যাপের মালিক হয়ে গেলেন। আজ হায়দ্রাবাদ টিম বোলিং ব্যাটিং ফিল্ডিং সব দিক থেকে সফল।

.
রাজস্থান রয়্যালস – ১২৫/৯ (২০ ovr.)
.
স্যামশন – ৪৯(৪২)
গোপাল – ১৮(১৮)
.
কল – ৪-০-১৭-২
সাকিব – ৪-০-২৩-২

সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ- ১২৬/১(১৫.৫)

শিখর ধাওয়ান-৭৭(৫৭)

উইলিয়ামসন-৩৬(৩৫)

Tags
Show More
BLW Artcl

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close