টেকনোলজি

১৫ দিনের মধ্যে সরাতে হবে এই ইমোজি, ভারতে বিপাকে হোয়াটসঅ্যাপ

ইন্টারনেটের যুগে হোয়াটসঅ্যাপ ছাড়া নিজেদের একপ্রকার অচল বলেই অনুভব করে যুব প্রজন্ম। তবে শুধু অল্প বয়সিরাই নয়, ক্রিসমাসের শুভেচ্ছা থেকে শুভ বিজয়া জানানোর এখন মূল মাধ্যম এই জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপই। কিন্তু একটি বিশেষ ইমোটিকোন ব্যবহার করে ভারতে বিপাকে পড়ল হোয়াটসঅ্যাপ। কোন ইমোজি নিয়ে উঠল আপত্তি?


Source

মঙ্গলবার গুরমীত সিং নামে এক আইনজীবী হোয়াটসঅ্যাপকে আইনি নোটিশ দিয়েছেন। তাঁর অভিযোগ, এই মেসেজিং অ্যাপে একটি ইমোজি রয়েছে, যেখানে হাতের মধ্যমা দেখানো হচ্ছে। যা অশ্লীল ইঙ্গিতের প্রতীক। আর তাই আগামী ১৫ দিনের মধ্যে এই ইমোজিটি সরিয়ে ফেলার নোটিশ দিয়েছেন আইনজীবী।


Source

দিল্লি সিটি আদালতের আইনজীবী গুরমীতের দাবি, ওই ইমোজিটি ভারতীয় সংস্কৃতির বিরোধী। নোটিশে তিনি বলেছেন, এই ইমোজি শুধু অপমানকরই নয়, অশ্লীল, আক্রমণাত্মক এবং নিম্নরুচিরও। আর সেই কারণেই ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪ এবং ৫০৯ নম্বর ধারায় মহিলাদের এমন ইঙ্গিত করা অপরাধ। ভারতীয় সংবিধান অনুযায়ী, যে কোনও ব্যক্তিকে প্রকাশ্যে মধ্যমা প্রদর্শন বেআইনি। নোটিশে গুরমীত আরও জানান, ১৯৯৪-এর ফৌজদারি আইনের ৬ নম্বর ধারা অনুযায়ী কোনও ব্যক্তিকে মধ্যমা প্রদর্শন আয়ারল্যান্ডেও অপরাধমূলক কাজ বলে গণ্য করা হয়।


Source

তিনি বলেন, “হোয়াটসঅ্যাপে এ ধরনের ইমোজি রেখে ইউজারদের তা ব্যবহারে উৎসাহই দেওয়া হচ্ছে। এতে যুবপ্রজন্মের কাছে সরাসরি অশ্লীল ইঙ্গিত প্রদর্শন আরও সহজ হয়ে যাচ্ছে।” আর সেই কারণেই এই বিশেষ ইমোজিটিকে সরিয়ে ফেলার আবেদন জানিয়েছেন ভারতীয় আইনজীবী। যার জন্য সময় দেওয়া হয়েছে নোটিশ ইস্যুর পরের ১৫ দিনে। সঙ্গে এও স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে, যদি ইমোজিটি না সরানো হয়, তাহলে মেসেজিং অ্যাপের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক মামলাও করবেন তিনি।

Source

Show More
BLW Artcl

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close